in ,

ক্ষমতাধর বিশ্বনেতাদের গাড়ির রিভিউ

একটা রাষ্ট্রের শাসনকর্তার হাতে অপরিমেয় ক্ষমতা থাকে, কখনো কখনো তা শুধু দেশেই নয়, পুরো পৃথিবী জুড়েই। অফিশিয়ালি তাদের যে গুরুত্ব, তার ওপর ভিত্তি করে এক রহস্যময় ইন্দ্রজাল ছড়িয়ে থাকে তাদের ঘিরে আমাদের চোখের সামনে।

ক্ষমতাধর প্রতিপত্তির অন্যতম নিশানা তাদের বহনকারী গাড়িগুলো। রাষ্ট্রীয় প্রধানদের গাড়ি সাধারণত তাদের এবং রাষ্ট্রীয় অতিথিদের পরিবহনের কাজে ব্যবহৃত হয়।

এ ধরণের গাড়িগুলোতে স্পর্শকাতর নিরাপত্তা ব্যবস্থাও নিশ্চিত করা হয়ে থাকে কেননা ক্ষমতাসীন এইসব মানুষের নিরাপত্তা একটা বড় ইস্যু, সত্যি বলতে সবচেয়ে বড় ইস্যুই৷ তাই পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি সুরক্ষা ও নিরাপত্তা বেষ্টিত গাড়িগুলো ক্ষমতাধর এইসব রাজনৈতিক নেতা এবং রাষ্ট্রীয় প্রধানদের অধীনেই।

নিরাপত্তার পাশাপাশি স্বাচ্ছন্দ্য, গতি, আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার, বাইরের লুক সবকিছুকেই করা হয়ে থাকে সর্বোচ্চ যত্নের সাথে, তবে অন্য সবকিছুর সাথে আপোষ করলে নিরাপত্তা ও সুরক্ষার ব্যাপারে যে কোন আপোষ করা হয় না, তা গাড়িগুলোর রিভিউতে চোখ রাখলেই বুঝতে পারবেন।

গাড়িগুলো ভীষণভাবে কাস্টোমাইজ এবং মডিফাই করা, এমন সব এক্সেসরিজ ব্যবহার করা হয়েছে গাড়িগুলোতে, যা গাড়ির সব কিছুকেই করে তুলেছে অদ্বিতীয়, সেরাদের সেরা।

আর অটোমোবাইল নির্মাতারাও খুশী হয়ে এ ধরণের কাজ করে থাকে তাদের ক্লায়েন্টদের জন্য, কারণ এটা দারুণ রকম এক বিজ্ঞাপন হয়ে যায় ব্র্যান্ড এবং ডিজাইনারের জন্য।

চলুন তাহলে দেখে নেয়া যাক, বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর রাষ্ট্রপ্রধানদের অফিশিয়াল স্টেট কারগুলোর রিভিউ,

বেন্টলি স্টেট লিমোজিন (Bentley State Limousine)

মূল্য – আনুমানিক ১৫, ১৬৭, ৫০০ ইউএস ডলার

ব্রিটেনের রাণীর ভ্রমণের জন্য, গাড়িটি বিশেষভাবে ডিজাইন করে তৈরী করা হয়েছে। ব্রিটিশ গাড়ি নির্মাতা বেন্টলি ২০০২ সালে কুইন এলিজবেথের গোল্ডেন জুবিলি উপলক্ষে গাড়িটি উপহার দেয় এবং ঘোষণা করে সবচেয়ে ব্যয়বহুল রাষ্ট্রীয় গাড়ি হিসেবে।

বেন্টলি স্টেট লিমোজিন ; Image Source: flickr.com

গাড়িটি ছাদ কিছুটা উঁচু করে নকশা করা হয়েছে যাতে মহারাণী তার নিজস্ব আদবকেতা বজায় রেখে মাথা উঁচু করেই ওঠা নামা করতে পারেন।

গাড়িটির দরজা নব্বই ডিগ্রি পর্যন্ত এঙ্গেলে খোলা যায়, ফলে মহারাণী সরাসরি হেঁটে গাড়ি থেকে বেরুতে পারেন, কোন রকম গতিবিধির পরিবর্তন ছাড়াই।

লিমোজিনটি এক্সিলারেটর এতো বেশি শক্তিশালী যে কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে একশ কিলোমিটারে গতি তুলতে পারে, যে কোন বিপদ বা আক্রমণে চোখের পলকে মহারাণীকে নিয়ে নিরাপদ স্থানে পৌছানোর প্রয়াসেই এই প্রযুক্তিটি রাখা হয়েছে।

এছাড়া, বুলেট প্রুফ, এক্সপ্লোসিভ প্রুফ সহ বিভিন্ন সিকিউরিটি আরমার্ড তো দেয়া হয়েছেই চমৎকার দেখতে লিমোজিনটিতে।

ক্যাডিলাক ওয়ান (Cadillac One)

মূল্য – ১, ৫০০, ০০০ ইউএস ডলার

আঠারো ফুট লম্বা, আট টন ওজন এবং আট ইন্চি পুরু আরমার প্লেটিং দিয়ে তৈরী দরজা, ইউনাইটেড স্টেটস অফ আমেরিকার প্রেসিডেন্টের গাড়িটি সত্যিকার অর্থে যতটা না গাড়ি, তার চেয়ে বেশি মেশিন।

দ্য বিস্ট ; Image Source: hardwarezone.com

গাড়িটি নির্মাণের পর একে ‘দ্য বিস্ট’ (The Beast) নিকনেইমে পরিচিতি দেয়া হয়।

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার পরিবহনের কাজে দ্য বিস্টকে প্রথম জনসম্মুখে আনা হয় এবং পরবর্তীতে অফিশিয়াল স্টেট কার হিসেবে ঘোষণা করা হয়।

ক্যাডিলাকের তৈরী করা গাড়িটিতে জেনারেল মোটরস আরো বিশেষ কিছু ফিচার যোগ করে যা দ্য বিস্ট কে করে তুলেছে অতুলনীয় নিরাপদ গাড়ি হিসেবে।

গাড়িটিতে কৃত্রিম অক্সিজেনের ব্যবস্থা যেমন রাখা হয়েছে, তেমনি রাখা হয়েছে একটি ক্ষুদ্র ব্লাড ব্যাংকও, যাতে প্রেসিডেন্টের রক্তের গ্রুপের রক্ত সংরক্ষণ করা হয় সর্বদাই৷

ক্যাডিলাক ওয়ান একটি আইইডি (IED) পর্যন্ত থামিয়ে দিতে সক্ষম। গাড়িটিতে বিশেষ ‘নাইট ভিশন সিস্টেম’ও (Night Vision  System) রাখা হয়েছে।

গাড়িটিতে একটি বিশেষ কম্পার্টমেন্টে আছে, যাতে দুটো অটোমেটিক মেশিনগান সেট করা থাকে শত্রুর আক্রমণে আত্মরক্ষার স্বার্থে।

তেমন খারাপ পরিস্থিতিতে গাড়িটির এক্সটেরিয়র এক্সপ্লোসিভ হিসেবে বাইরের দিকে বিস্ফোরণ ঘটিয়েও আক্রমণে সক্ষম।

যে কোন প্রকার গ্যাস এ্যাটাক হলে গাড়িটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে গাড়ির দরজা, জানালা লক করে দেয় এবং ভেতরে পরিষ্কার বাতাস সরবরাহ করতে থাকে।

এ্যাটাকের সাথে সাথে এটি নিকটস্থ সাহায্যস্থানের বার্তা পাঠানো এবং তীব্র শব্দে এ্যালার্ম বাজানো শুরু করে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট শুধু যুক্তরাষ্ট্রের লিডার হিসেবেই নয়, তাকে বিবেচনা করা হয় মুক্ত বিশ্বের নেতা হিসেবেও, তাই তার নিরাপত্তা ব্যবস্থা অত্যাধিক এবং অত্যাধুনিক মানের হওয়াই স্বাভাবিক।

দ্য বিস্টের ড্রাইভার হিসেবেও উচ্চ প্রশিক্ষিত সিআইএ (CIA – Crime Investigation of America) এজেন্টকে নিয়োগ করা হয়, যাতে সে তেমন কোন পরিস্থিতি আসলে চাপেও মাথা ঠিক রেখে গাড়ি এবং পরিস্থিতি দুটোই নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। 

হংকি লিমোজিন (Hongqi Limousine)

মূল্য – ৮, ০১, ৬২৪ ইউএস ডলার

‘হংকি’ শব্দের অর্থ ‘লাল নিশান’, এটি চায়নার কম্যুনিস্ট আদর্শের প্রতীক। বলার প্রয়োজন নেই, চায়নার প্রেসিডেন্টকে পরিবহনের কাজে গাড়িটা ব্যবহৃত হয়।

হংকি লিমোজিন ; Image Source: forbes.com

হংকি চায়নার সবচেয়ে ব্যয়বহুল গাড়ি, এটি শুন্য থেকে একশত কিলোমিটার গতিতে উঠতে পারে আট সেকেন্ডেরও কম সময়ে।

১৮ ফিট লম্বা, সাড়ে ছয় ফিট প্রশস্তের গাড়িটির ওজন তিন হাজার একশ বায়ান্ন কিলোগ্রাম। 

মার্সিডিজ বেন্জ এম-ক্লাস (Mercedes Benz M-Class)

মূল্য – ৫, ২৪, ৯৯০ ইউএস ডলার

ভ্যাটিকানে প্রশাসনিক সবকিছুর প্রধান ধরা হয় যাকে, তিনি পুরো বিশ্বে পোপ নামে পরিচিত। ক্যাথলিক খ্রিষ্টানদের ধর্মীয় গুরু পোপকে পরিবহনের কাজে ব্যবহৃত হয় মার্সিডিজ বেন্জ এম-ক্লাস।

মার্সিডিজ বেন্জ এম ক্লাস ; Image Source: autocar.co.uk

দ্বিমত থাকলেও, বেশিরভাগ মানুষের মতে, মার্সিডিজ বেন্জ এম-ক্লাস গাড়িটি মার্সিডিজ বেন্জ ব্র্যান্ডের সবচেয়ে বিখ্যাত গাড়ি।

পোপকে পরিবহন করা গাড়িটির নিক নেইম রাখা হয়েছে ‘পোপমোবাইল’। 

একটি পরিপূর্ণ আরমার্ড গ্লাস বেষ্টিত পেছনের গ্লাস নামিয়ে পোপ ফুল ও শুভেচ্ছা গ্রহণ করেন ভক্ত দের কাছে থেকে৷

জাগুয়ার এক্সজে সেন্টিনেল (Jaguar XJ Sentinel)

মূল্য – ৪, ৫৫, ০২৫ ইউএস ডলার

ইউনাইটেড কিংডমের (যুক্তরাজ্য) প্রধানমন্ত্রী ব্যবহার করেন আরমার্ড জাগুয়ার এক্সজে সেন্টিনেল তার প্রশাসনিক পরিবহন হিসেবে।

জাগুয়ার এক্সজে সেন্টিনেল ; Image Source: imcdb.org

গাড়িটিতে কিছুটা জেমস বন্ড মুভিতে ব্যবহৃত গাড়ির প্রভাব রয়েছে৷ টিটানিয়ামের বডি, বুলেটপ্রুফ গ্লাস এবং নাইট ভিশন সমেত গাড়ি শুধু বন্ডীয় গাড়িগুলোতেই কল্পনা করা যায়৷

গাড়িটির বডি তৈরী করা হয়েছে কেভলার এবং হাই-স্ট্রেন্থ স্টিল দিয়ে, সুতরাং বুঝতেই পারছেন, গাড়িটির ওজন নেহায়েত কম নয়।

মজার ব্যাপার হচ্ছে, যদি কোন কারণে প্রধানমন্ত্রী একটা ক্লান্ত পরিশ্রান্ত দিন কাটানোর পর সন্ধায় একটু প্রফুল্ল হতে চায়, গাড়িটির সিটে বিশেষ প্রযুক্তি লাগানো আছে যা শরীরকে ম্যাসাজ করে দিতেও পারবে৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *