in ,

নতুন বছরে বাংলাদেশে লন্চ হতে যাচ্ছে যত মোটরসাইকেল

বাংলাদেশের মোটরসাইকেল বাজার ২০১৯ সালে ছিল মিশ্র প্রতিক্রিয়ার। রেজিষ্ট্রেশন চার্জ বৃদ্ধি, ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাড়া মোটরসাইকেল বিক্রি নিষিদ্ধ করা ইত্যাদি কারণে বছরের মধ্যভাগে মনে হয়েছিল হয়তো একটি মন্দা আসতে যাচ্ছে বাজারে। এছাড়া বছরের শেষ দিকে মোটরসাইকেল সহ সকল মোটরযানের ট্রাফিক আইন ভঙ্গ করলে জরিমানা ও শাস্তির পরিমাণ কয়েকগুণ করে বাড়িয়ে ফেলাও ক্রেতাদের মনে বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করবে বলে অনুমান করা হলেও পরবর্তীতে তেমন কোন ছাপ মোটরসাইকেল বাজারে পড়তে আমরা দেখিনি।

বরং বছর জুড়েই মোটরসাইকেল ব্র্যান্ডগুলো নতুন নতুন মডেল দেশের বাজারে লন্চ করেছে। আর নতুন মোটরসাইকেল গুলো নিয়ে তরুণ ক্রেতা মহলে উচ্ছ্বাস উত্তেজনাও ছিল দেখার মতো।

গতবছরের মতো এবারও মোটরসাইকেল বাজার যাবে জমজমাট ; Image Source: hdhut.blogspot.com

২০১৯ সালেই প্রথম দেশের বাজারে এসেছে ১৫০ সিসি মোটরসাইকেল। এছাড়াও এবিএস(এন্টিলক ব্রেকিং সিস্টেম) সংযুক্ত মোটরসাইকেলও গত বছরই প্রথম বাংলাদেশে আমরা দেখতে পাই।

গত বছরের সূত্র ধরে, ২০২০ সালেও মোটরসাইকেল কোম্পানিগুলো বেশ কয়েকটি নতুন মডেল দেশের বাজারে আনার পরিকল্পনা করছে।

বিভিন্ন পত্রিকা, ওয়েবসাইট এবং বিভিন্ন মোটরসাইকেল ব্র্যান্ড এম্বাসেডরদের ইন্টারভিউ এ বলা কথার উপর ভিত্তি করে সম্ভাব্য আসতে যাওয়া মোটরসাইকেল ব্র্যান্ডগুলো নিয়ে সাজানো হয়েছে তালিকাটি,

হোন্ডা

গতবছর বাংলাদেশের বাজারে হোন্ডা নতুন বেশ কিছু বাইক নিয়ে এসেছে । ‘হোন্ডা বাংলাদেশ’ এর ফ্যাক্টরিতে তৈরি Honda Livo, Honda CB Shine SP এবং হোন্ডার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন ও আলোচিত বাইক Honda X Blade বাংলাদেশে লঞ্চ করেছে । আমরা আশা করছি যে ২০২০ সালে হোন্ডা Honda CB Hornet এর CBS এবং ABS ভার্সন বাংলাদেশে লঞ্চ করবে । এই বাইকটিতে দেয়ার কথা এলইডি হেড লাইট, নতুন গ্রাফিক্স এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন সিঙ্গেল চ্যানেল এবিএস।

হোন্ডা এক্স-ব্লেড ; Image Source: overdrive.in

হোন্ডা নিয়ে বিভিন্ন বাইক নিউজ সাইটগুলোর রিউমার পর্যালোচনা করে মনে হয়েছে, হোন্ডা অফ রোড মোটরসাইকেল নিয়ে কাজ করছে । ইতিমধ্যে আমরা দেখেছি যে হোন্ডা স্কুটার সেগমেন্টে অনেক বেশি এগিয়ে আছে।

সবচেয়ে উত্তেজক খবর হচ্ছে, যে বাইকটি দেখার জন্য অনেকেই উন্মুখ হয়ে রয়েছে, সেটি হচ্ছে Honad CB 150R Streetfire, হোন্ডা অফিশিয়ালি এই বাইকটি লঞ্চ করার সম্ভবনা রয়েছে। বাংলাদেশের বাজারে এ বছর না আসলেও আগামী এক দুই বছরের মধ্যে রাস্তায় চমৎকার এ বাইকটি চলতে দেখলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

সুজুকি

সুজুকির তাদের কাস্টোমারদের অনেক কিছু দেয়াই বাকি রয়েছে। বাংলাদেশী বাইকাররা অপেক্ষা করে রয়েছেন ২০১৯ ভার্সন এর সুজুকি জিক্সার এবং সুজুকি জিক্সার এসএফ বাইক দেখা জন্য।

সুজুকি জিক্সার এসএফ ; Image Source: motoroids.com

২০১৯ ভার্সনের উভয় বাইকের রয়েছে কসমেটিক বা গ্রাফিক্যাল পরিবর্তন, স্ট্যান্ডার্ড এবিএস এবং পাওয়ার ডেলিভারী টিউন করা হয়েছে ।

সুজুকি জিক্সার ও জিক্সার এসএফ বাংলাদেশে বাইক দুটি অনেক দিন থেকেই রয়েছে, প্রচুর বিক্রিও করেছে সুজুকি এ দেশে এই বাইকগুলো। তাদের ব্যবসায়িক সাফল্যের কথা বিবেচনা করে হলেও কিছুটা পরিবর্তিত ও পরিবর্ধিত ভার্সন নিয়ে আসা জরুরী।

কাওয়াসাকি

আমাদের ধারনা হচ্ছে কাওয়াসাকি তাদের নতুন কোন মডেল এই বছর লঞ্চ করবে না। শুধু মাত্র নতুন ডিজাইনের বাইক নিয়ে আসার সম্ভাবনা রয়েছে। নতুন কিছু নিয়ে আসলে সেটা বাইকারদের জন্য হবে একটা সারপ্রাইজ।

ইয়ামাহা

ইয়ামাহা গত বছর FZS সিরিজের এফআই ও এবিএস সিস্টেম সহ লঞ্চ করেছে। এছাড়া তারা আরও লঞ্চ করেছে ইন্ডিয়ান Yamaha MT 15 এবং Yamaha R15 V3। আমরা আশা করছি, এই বছর ইয়ামাহা কোন একটি অফ রোড মোটরসাইকেল বাংলাদেশে লঞ্চ করবে। একই সাথে ইয়ামাহা বাংলাদেশে লঞ্চ করতে পারে Yamaha XSR 155, প্রিমিয়াম ক্যাফে রেসার।

ইয়ামাহা এক্সএসআর ১৫৫ ; Image Source: youtube.com

Yamaha XSR 155 বাইকটি তে Yamaha R15 V3 এর মত একই ইঞ্জিন ব্যবহার করা হয়েছে। ইঞ্জিনের পাওয়ার ও টর্ক ডেলিভারী একই রকম। এছাড়া ইয়ামাহা এই বছর নিয়ে আসতে পারে Yamaha XTZ 150 অফ রোড বাইকটি। এই বাইকটি ১৫০সিসি সেগমেন্টে চমৎকার একটি অফ রোড বাইক।

লিফান

লিফান এবার কিছু চমক নিয়ে হাজির হতে পারে। বিভিন্ন বাইক সাইটগুলোর রিউমারে ধারণা করা যায় যে, লিফান বাংলাদেশে নতুন Lifan KPR150 বাইকটি বাংলাদেশে লঞ্চ করবে এই বছরই।

লিফান কেপিআর ১৫০ ; Image Source: bikebd.com

বাইকটি সম্পূর্ন নতুন রূপে ডিজাইন করা হবে । বাইকটিতে থাকতে পারে স্প্লিট সিট, আন্ডার বেলি এক্সহস্ট, USD সাসপেনশন সহ নতুন অনেক ফিচার৷

টিভিএস

গতবছর সবচেয়ে বেশি ব্যবসা করা বাইক ব্র্যান্ডগুলোর তালিকা করলে সেখানে টিভিএস সবচেয়ে উপরে অবস্থান করলেও অবাক হওয়ার কিছু নেই৷ অতি অল্পদিনের মধ্যেই বাংলাদেশের বাজারে বিপুল ছাপ রাখতে শুরু করেছে টিভিএস।

২০১৯ সালে টিভিএস কয়েকটি নতুন বাইক লঞ্চ করেছে। তাদের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে TVS Apache RTR 160 4V (dual disc)।

টিভিএস এপাচি আরটিআর ১৬০ ফোর্থ ভার্সন ; Image Source: motoroids.com

২০২০ সালে আমরা প্রত্যাশা করতে পারি, টিভিএস TVS Apache RTR 160 4V বাইকটির এফআই ও এবিএস বাংলাদেশে লঞ্চ করবে।

এছাড়া আমরা আরও আশা করছি যে, ২০২০ সালে টিভিএস N Torq স্কুটারটি লঞ্চ করবে। গত বছর গোয়াতে অনুষ্ঠিত হওয়া টিভিএস মটো সোল এ স্কুটারটি দেখা গিয়েছিল।

হিরো

বর্তমানে হিরোর নতুন কোন মোটরসাইকেল আশার সম্ভাবনা খুব কম, অন্তত বাংলাদেশের বাজারে ২০২০ সালে হিরো নতুন কোন মডেলের মোটরসাইকেল যে আনছে না, তা এক প্রকার নিশ্চিতই বলা যায়।

তবে বছরের মাঝামাঝি বা শেষের দিকে হিরোর নতুন একটি বাইক ইন্ডিয়াতে লঞ্চ হবার সম্ভাবনা রয়েছে। যদি হয়েই যায়, সেক্ষেত্রে হয়তো ২০২১ সালে হিরোর নতুন কোন বাইক বাংলাদেশের শো রুম গুলোতেও দেখতে পাবো।

বাজাজ

বাজাজ ২০১৯ সালে অনেক গুলো বাইক লঞ্চ করেছে । এদের মধ্যে Bajaj Pulsar NS160 Fi ABS এবং Bajaj Pulsar Neon অন্যতম বাইক।

গত বছরের তুলনায় ২০২০ সালে আমরা বাজাজের কাছ থেকে প্রিমিয়াম কোয়ালিটির নতুন কোন মডেলের বাইক আশা করছি না। তবে তারা কমিউটার সেগমেন্টে নতুন কিছু নিয়ে আসতে পারে।

এদের মধ্যে রয়েছে Bajaj Platina 110 H Gear বাইকটি অন্যতম। এছাড়া বাজাজ ক্রজার সেগমেন্টে নিয়ে আসতে পারে Bajaj Avenger 160 বাইকটি বাংলাদেশে লঞ্চ করার ক্ষীণ একটি সম্ভাবনা রয়েছে।

বাজাজ এভেন্জারস ১৫০ ; Image Source: shifting-gears.com

তালিকায় থাকা মোটরসাইকেল ব্র্যান্ডগুলোর মডেলগুলো বিভিন্ন বাইক সংক্রান্ত খবর, আর্টিকেল, ভিডিও ইত্যাদি থেকে পর্যালোচনা করে সম্পূর্ণ অনুমানের ভিত্তিতে তৈরী করা হয়েছে। কোনটিই এখন পর্যন্ত অফিশিয়াল ঘোষণা আসেনি। তবে গত কয়েক বছরের পরিক্রমায় বোঝা যায়, বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এই অনুমানগুলোই বছরজুড়ে সত্যি হতে থাকে।

তাই চাইলে প্রত্যাশায় উত্তেজনার পারদ আপনি উপরে চড়াতেই পারেন।

হ্যাপি রাইডিং!

\

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *