in ,

ধনী ক্রিকেটারদের গাড়ির গল্প

চলছে ক্রিকেট বিশ্বকাপ, দেশ জুড়েই উন্মাদনায় মাতোয়ারা ক্রিকেট পাগল বাংলাদেশের মানুষ। প্রথম রাউন্ডের সমীকরণ বেশ জটিল হয়ে গেলেও সিংহভাগ বাঙালী ক্রিকেটপ্রেমীরা এখনো সেমিফাইনালে যাওয়ার স্বপ্নে বিভোর।

ক্রিকেট পাগল জাতি হিসেবে তুলনা করলে উপমহাদেশের দেশগুলো যে যোজন যোজন ব্যবধানে এগিয়ে থাকবে, সে কথা না বললেও চলে। আবার বাংলাদেশীদের ক্রিকেট পাগলামীর সাথে তুলনা যদি করতে চাই তবে পার্শ্ববর্তী জাতি ভারতীয়দেরই করতে হবে। ক্রিকেট যেখানে প্রায় ধর্মের মতো।

ধনী ক্রিকেট খেলোয়াড়দের গাড়ি নিয়ে ঘাটাঘাটি করতে গিয়ে বেশ অবাকই হতে হয়। ক্রিকেটারদের সবচেয়ে দামী, বিলাশবহুল গাড়িগুলোর তালিকা করতে গেলে সবগুলো নামই শুধু ভারতীয় ক্রিকেটারদের নামই উঠে আসে।

অবশ্য খুব বেশী অবাক হওয়ারও কারণ নেই। সবচেয়ে ধনী ক্রিকেট বোর্ড, সবচেয়ে বেশী জনপ্রিয় প্রিমিয়ার লীগ যে দেশের, সে দেশের ক্রিকেটাররা ধনীদের তালিকা কিংবা দামী বাড়ি গাড়ির তালিকা দখল করবে, এ অনুমেয়ই।

চলুন, দেখে নেয়া যাক, ধনী ক্রিকেটারদের গাড়ির গল্প,

এমএস ধোনী

এমএস ধোনী সম্ভবত ভারতীয় ক্রিকেটারদের ধনী ও বিলাসবহুল হওয়ার সবচেয়ে আকর্ষণীয় প্রতীক। অধিনায়ক হিসেবে জিতেছেন বিশ্বকাপ, লাখো কোটি ভক্ত, ধনী ক্রিকেটারদের তালিকার শীর্ষে, আর আমাদের আগ্রহের কারণ তার বিলাসবহুল দামী গাড়ি-মোটরসাইকেলে বিপুল আগ্রহ।

এমএস ধোনী তার পোর্শে ৯১১ এর সাথে ; Image Source: indianscarsbikes

মাহেন্দ্র সিং ধোনী একটা হামারের গর্বিত মালিক, মাসকুলিন লুক, হাইপারফরমেন্স এসইউভি যা রাজপথে সরব উপস্থিতি জানান দেয়।

জিএমসি সিয়েরা, প্রায় দৈত্যাকৃতির বিশাল এই ট্রাকটি গর্বিত ভঙ্গিতে রাখা থাকে এমএস ধোনীর গ্যারেজে।

এছাড়া ধোনীর কালেকশনে পোর্শে ৯১১, অডি কিউ৭, টয়োটা করোলা, মিতসুবিশি পাজেরো তো আছেই, সাথে তার নিজস্ব ব্র্যান্ড মাহেন্দ্রা স্কোরপিও শোভা পায় তার সংগ্রহে।

ভিরাট কোহলি

মাত্র ২৮ বছর বয়সে ইন্ডিয়া তো বটেই, ক্রিকেট বিশ্বেরই সর্বকালে সেরাদের তালিকায় নিজের নাম উচ্চারণ করাচ্ছেন ক্রিকেট বোদ্ধাদের। তার ক্রিকেট পরিসংখ্যান যেমন অবাক করা তেমনি মনোমুগ্ধকর তার গাড়ির সংগ্রহও।

ভিরাট কোহলি এবং অডি আর৮ ; Image Source: thequint

ভিরাট তার উজ্জল হলুদ রঙের অডি আর ৮ ভি১০ গাড়িটিকে ভীষণ পছন্দ করেন, দুই সিটের গাড়িটিতে ভিরাট আনুসকা দম্পত্তিকে দেখা গেছে বেশ কয়েকবারই।

৪.৮ লিটারে সজ্জিত, ভি১০ ইন্জিনটি সর্বোচ্চ ৪২০ বিএইচও পিএফ পর্যন্ত শক্তি উৎপাদন করতে পারে।

সুতরাং বুঝতেই পারছেন, রাস্তায় চালালেও এ গাড়ি সেরা মানের কোন স্পোর্টস কারের চেয়ে কম না।

এছাড়াও ভিরাটের সংগ্রহে রয়েছে অডি কিউ৭, অডি এস৬, টয়োটা ফরচুনার এবং রেনাল্ট ডাস্টার। শ্রীলঙ্কার সাথে দ্বিপাক্ষিক সিরিজে অসাধারণ পারফরম্যান্স করার পুরষ্কার হিসেবে ডাস্টার গাড়িটি পান ভিরাট কোহলি।

শচীন রমেশ টেন্ডুলকার

যদি আমরা ক্রিকেটার এবং বিলাসবহুল গাড়ি নিয়ে আলোচনায় বসতে চাই, সবার আগে স্বয়ংক্রিয়ভাবে আমাদের মনে যে নামটি চলে আসবে সেটি শচীন টেন্ডুলকার।

শচীন টেন্ডুলকার প্রথম গাড়ির জন্য ২০০২ সালে আলোচনায় আসেন যখন মাইকেল শ্যুমাখার তাকে একটি ফেরারি উপহার হিসেবে পাঠান শচীনের পারফরম্যান্সে মুগ্ধ হয়ে।

ইন্ডিয়ান ক্রিকেটের ঈশ্বর শচীন ক্রিকেটের মতই গাড়ির প্রতিও প্যাশনেট। অনেক ইন্টারভিউতেই তিনি স্বীকার করেছেন গাড়ির প্রতি তার দূর্বলতা ও মুগ্ধতার কথা।

লাল রঙের নিশান জিটিআর গাড়িটির মালিক শচীন টেন্ডুলকার ; Image Source: autoblog

সাবেক এই বিশ্বসেরা ব্যাটসম্যান বর্তমানে একটি লাল রঙের নিশান জিটিআর ব্যবহার করেন। গাড়িটির বর্তমান মূল্য ভারতীয় মুদ্রায় ১ কোটি বিশ লাখ রূপি।

গাড়িটির ৫০০ বিএইচপি শক্তি সম্পন্ন ইন্জিন যা শুন্য থেকে একশ কিলোমিটার /ঘন্টাতে গতি তুলতে পারে মাত্র ২.৯ সেকেন্ডে।

লিটল মাস্টারের সংগ্রহে রয়েছে বিএমডব্লিউ এম৫ এবং বিএমডব্লিউ এম৬ এর মত মাস্টারপিসও।

বিএমডব্লিউর ইন্ডিয়া জোনের ব্র্যান্ড এম্বাসেডর হওয়ায় শচীন টেন্ডুলকারের সংগ্রহের তালিকায় বিএমডব্লিউ ব্র্যান্ডের একটা আধিপত্য চোখে পড়ে।

যুবরাজ সিং

হট শট ইন্ডিয়ান হার্ড হিটার যুবরাজ সিং কে পরিচয় করিয়ে দেবার জন্য কোন ভূমিকার প্রয়োজন নেই। ক্রিকেট মাঠে আক্রমনাত্মক খেলার একটা নিজস্ব সীমারেখা তিনি তৈরী করেছিলেন। একই রকম বিলাসিতা তিনি গাড়ির বেলাতেও করেন।

যুবরাজের ল্যাম্বরঘিনি মার্সেলিগো ; Image Source: caranddriver

যুবরাজের ক্যারিয়ারের দিকে তাকালে দেখা যায় তিনি প্রথম হোন্ডা সিটির সাথে যুক্ত হন, তা ২০০১ সালের আগে।

বর্তমানে তিনি একটি ল্যাম্বরঘিনি মারসেইলাগো‘র গর্বিত মালিক। সুপার স্টাইলিশ এই স্পোর্টস কারটির মূল্য ভারতীয় মূদ্রায় তিন কোটি রূপি, আর গাড়িটির মনোমুগ্ধকর পারফরম্যান্স যে কাউকে স্বর্গীয় অনুভূতিই দেবে।

এটা ছাড়াও যুবরাজ সিং আরো অনেকগুলো বিলাসবহুল গাড়ির সংগ্রহের মালিক, ২ কোটি রুপি মূল্যের পোর্শে ৯১১, ১.৩৯ কোটি রুপির বিএমডব্লিউ এম৫ তো রয়েছেই, রয়েছে অডি এ৫ এর মত বিলাসবহুল গাড়ি, যেটি ললিত মোদি তাকে উপহার দেন ছয় বলে ছয়টি ছক্কা মারা রেকর্ডের পর।

সৌরভ গাঙ্গুলি

ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সেরা অধিনায়কদের তালিকায় ‘অফসাইডের ঈশ্বর’ সৌরভ গাঙ্গুলিকে রাখা হয় তার রক্ত গরম করা নেতৃত্বের জন্য।

কলকাতা শহরের বিখ্যাত এক পরিবারে জন্মগ্রহণ করা ভারতীয় সাবেক এই ক্রিকেটারের নামডাক রয়েছে তার বিলাসবহুল ও নামী দামী ব্র্যান্ডের গাড়ি প্রীতির জন্যও৷

মার্সিডিজ ব্র্যান্ডের দারুণ ভক্ত সৌরভের সংগ্রহে মার্সিডিজ বেন্জের বেশ আধিক্য দেখা যায়।

সৌরভের প্রিয় মার্সিডিজ সিএলকে কনভার্টিবল ; Image Source: zombdrive

মার্সিডিজ বেন্জ সিএলকে কনভারটেবল সম্ভবত তার সবচেয়ে প্রিয় গাড়ি, ভারতীয় ক্রিকেটের দাদাকে প্রায় দারুণ সুন্দর দেখতে এ গাড়িতে চড়ে ঘুরে বেড়াতে দেখা যায়৷

এ ছাড়া সৌরভ গাঙ্গুলির গ্যারেজে বিএমডব্লিউর বেশ কয়েকটি দামী গাড়িও চোখে পড়ে।

তালিকাটা পুরোপুরিই ভারতীয় বায়াসড, তবে তালিকা করতে বসে আমাদেরও এ থেকে বের হওয়ার কোন উপায় মেলেনি। দামী গাড়ি কেনা ও ব্যবহারের তালিকায় ভারতীয়দের এতো বেশিই আধিপত্য যে, অন্যদের গাড়ি রিভিউ করতে গেলে ‘নন-ভারতীয়’ ট্যাগ দিয়ে তালিকাটি পরবর্তী কোন লেখায় নিয়ে আসার চেষ্টা করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *